কম্পিউটারের ধারণা

কম্পিউটার

Computer শব্দের অর্থ গণক বা হিসাবকারী। Computer শব্দটি এসেছে গ্রিক শব্দ থেকে। শুরুতে কম্পিউটার গণনাকারী যন্ত্র হিসেবে তৈরি হলেও বর্তমানে কেবলমাত্র গণনা করার কাজে এটিকে ব্যবহার করা হয় না। জীবনের প্রায় প্রতিটা কাজে Computer কে ব্যবহার করতে হয়। কেননা Computer প্রথমে কোনো তথ্যকে গ্রহণ করে, তারপর সেই তথ্যের উপর ভিত্তি করে ভেতরে কাজ করে এবং সবশেষে সেটার একটা ফলাফল দেখায়। কম্পিউটারে নিজস্ব কোনো চিন্তাবুদ্ধি নেই। পুনরাবৃত্তি মূলক কাজের জন্য কম্পিউটার সবচেয়ে বেশি সুবিধাজনক। তবে বিশ্বে প্রথম গণনাকারী যন্ত্রের নাম ছিলো এবাকাস।

 

আধুনিক কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য

১. দ্রুত গতি : কম্পিউটার ন্যানো সেকেন্ড সময়ে একটা কাজ করে ফেলতে পারে। ১ ন্যানো সেকেন্ড হচ্ছে = ১ সেকেন্ডের ১০০ কোটি ভাগের ১ ভাগ সময়। আধুনিক কম্পিউটারের দ্রুত গতির জন্য দায়ী ইন্টিগ্রেটেড সার্কিট (IC)। কম্পিউটারের গতিকে তুলনা করা হয় বিদ্যুতের গতির সাথে।

এছাড়া কম্পিউটার আরো কিছু সময়ের এককে কাজ করে, এই সময়গুলো হচ্ছে-

১ মিলি সেকেন্ড = ১ / ১০০০ সেকেন্ড = ১-৩ সেকেন্ড

১ মাইক্রো সে. = ১ / ১০০০০০০ সে. = ১-৬ সে.

১ ন্যানো সে. = ১ / ১০০০০০০০০০ সে. = ১-৯ সে.

১ পিকো সে. = ১-১২ সে.

১ ফেমটো সে. = ১-১৫ সে.

২. নির্ভুলতা : কম্পিউটার প্রায় ১০০ ভাগ নির্ভুল তথ্য দিতে পারে। যদি ব্যবহারকারী ভুল তথ্য দেয় তবে কম্পিউটার ভুল কাজ করবে। কম্পিউটারের কাজের ভুল ফলাফল দেওয়াকে বলে GIGO বা Garbage in garbage out।

৩. সূক্ষ্ণতা

৪. ক্লান্তি হীনতা (Diligence)

৫. স্মৃতিশক্তি

৬. স্বয়ংক্রিয়তা (Automation)

৭. বহুমুখীতা (Versatility)

৮. যুক্তিসঙ্গত সিদ্ধান্ত (Logical Decision)

৯. অসীম জীবনীশক্তি

১০. বিশ্বাসযোগ্যতা

পড়াশোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত শত ভিডিও ক্লাস বিনামূল্যে করতে জয়েন করুন আমাদের Youtube চ্যানেলে-

www.youtube.com/crushschool

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published.