নিউটনের গতিসূত্র কি কি?

১৬৮৭ সালে স্যার আইজ্যাক নিউটন তার অমর গ্রন্থ “ফিলোসোফিয়া ন্যাচারালিস প্রিন্সিপিয়া ম্যাথম্যাটিকা” তে বস্তুর ভর, গতি ও বলের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপন করে তিনটি সূত্র প্রকাশ করেন। এ সূত্র তিনটি নিউটনের গতি বিষয়ক সূত্র নামে পরিচিত।

প্রথম সূত্র

বাহ্যিক কোনো বল প্রয়োগ না করলে অর্থাৎ বস্তুর উপর বলের লব্ধি শূন্য হলে স্থির বস্তুর স্থিরই থাকবে এবং গতিশীল বস্তু সুষম দ্রুতিতে সরল পথে চলতে থাকবে। (An object will remain at rest or in uniform motion in a straight line unless acted upon by an external force)

দ্বিতীয় সূত্র

বস্তুর ভরবেগের পরিবর্তনের হার এর উপর প্রযুক্ত বলের সমানুপাতিক এবং বল যে দিকে ক্রিয়া করে বস্তুর ভরবেগের পরিবর্তন সেদিকে ঘটে। (The force acting on an object is equal to the mass of that object times its acceleration)

তৃতীয় সূত্র

প্রত্যেক ক্রিয়ারই একটি সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে। (For every action, there is an equal and opposite reaction)

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

অতিথি লেখক হিসেবে আমাদেরকে আপনার লেখা পাঠাতে চাইলে মেইল করুন-

write@thecrushschool.com

Abdul Mukit Nipun

ex Notre Damian, BUET ME’18. Like to keep connected with the rest of world and believe in humanity.