ভাইরাসের উপকারীতা ও অপকারীতা (Advantages & Disadvantages of the Virus)

আমাদের জন্য ভাইরাস যত না উপকারী তার চেয়ে বেশি অপকারী। ভাইরাস আক্রমণের ফলে মানুষের অন্ধত্ব, পঙ্গুত্ব, এমনকি অকাল মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

 

ভাইরাসের অপকারীতা

  • ভাইরাস মানুষের বসন্ত, হাম, পোলিও, জলাতঙ্ক, ইনফ্লুয়েঞ্জা, হার্পিস, ডেঙ্গু, ভাইরাল হেপাটাইটিস ইত্যাদি মারাত্মক রোগ সৃষ্টি করে থাকে।
  • বিভিন্ন উদ্ভিদের মোজাইক রোগ, লিফরোল (পাতা কুচকাইয়া যাওয়া), বুসিস্ট্যান্ট, ধানের টুংগ্রো ইত্যাদি প্রায় ৩০০ ধরনের রোগ ভাইরাস দ্বারা ঘটে থাকে। এতে ফসলের উৎপাদন বিপুলভাবে কমে যায়।
  • গরুর বসন্ত, গরু, ভেড়া, ছাগল, শূকর, মহিষ ইত্যাদি প্রাণীর ‘ফুট এ্যান্ড মাউথ’ রোগ অর্থাৎ এদের পা ও মুখের বিশেষ ক্ষতরোগ এবং কুকুর ও বিড়ালের জলাতঙ্ক (hydrophobia) রোগ ভাইরাস দিয়েই সৃষ্টি হয়।
  • ফায ভাইরাস মানুষের কিছু উপকারী ব্যাকটেরিয়াও ধ্বংস করে থাকে।
  • বহুল আলোচিত ‘এইডস’ রোগের কারণ হিসেবেও বিজ্ঞানিগণ ভাইরাসকে দায়ী করেছেন। HIV নামক ভাইরাস দিয়ে AIDS রোগ হয়। HIV দিয়ে আক্রান্ত হলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকে না। এর ফলে অকাল মৃত্যু হয়। বাংলাদেশে ক্রমেই এইডস রোগীর সংখ্যা এবং এ রোগে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে।
  • Ebiola ভাইরাস : আফ্রিকার জায়ার-এ Ebiola virus-এর আক্রমণে মহামারী দেখা দেয়। Ebiola ভাইরাসের আক্রমণে দেহের কোষ ফেটে যায়।
  • সম্প্রতি SARS (Severe Acute Respiratory Syndrome) ভাইরাসের কারণে চীন, তাইওয়ান, কানাডা প্রভৃতি দেশে বহু লোকের মৃত্যু হয়েছে।
  • বার্ড ফ্লু একটি ভাইরাসজনিত রোগ। প্রচুর পাখি এটায় আক্রান্ত হয়, ফলে ভাইরাসটা মানুষের দেহেও চলে আসে।
  • সোয়াইন ফ্লু হচ্ছে এমন একটা রোগ যা Swine Influenza Virus (SIV) এর দ্বারা সৃষ্টি হয়। ইনফ্লুয়েঞ্জা এ ভাইরাসের Subtype H5N1 ও H1N1 এর কারণে এই ফ্লু ঘটে থাকে। এ ভাইরাস দ্বারা মানুষ ও শূকর আক্রান্ত হয়।

কয়েকটি প্রাণী ভাইরাস রোগের নাম, পোষকদেহ এবং ভাইরাসের নাম :

AIDS (মানুষ) : HIV ভাইরাস

ডেঙ্গু (মানুষ) : ফ্ল্যাভিভাইরাস (Flavi Virus)

বার্ড ফ্লু (মানুষ, হাঁস-মুরগী, পাখি) : ইনফ্লুয়েঞ্জা এ (H5N1) ভাইরাস

Swine flu (মানুষ, শূকর) : ইনফ্লুয়েঞ্জা এ (H1N1) ভাইরাস

SARS (মানুষ) : Nipah virus

গুটি বসন্ত / Small Pox (মানুষ) : ভেরিওলা ভাইরাস (Variola Virus)

জলবসন্ত / Chicken Pox (মানুষ, পশুপাখি) : Varicella-Zoster Virus

নিউমোনিয়া (মানুষ) : Adeno virus

কোষের লাইসিস / Lysis (মানুষ) : Ebiola virus

সাধারণ সর্দি (মানুষ) : Rhino virus

হাম (মানুষ) : রুবিওলা ভাইরাস (Rubeola virus)

পোলিওমাইলাইটিস (মানুষ) : পোলিও ভাইরাস (Polio virus)

ইনফ্লুয়েঞ্জা (মানুষ) : ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস (Influenza virus)

হার্পিস (মানুষ) : হার্পিস সিমপ্লেক্স (Herpes virus)

ভাইরাল হেপাটাইটিস (মানুষ) : হেপাটাইটিস-বি ভাইরাস (Hepatitis B)

পীতজ্বর (মানুষ) : ইউলো ফিভার ভাইরাস (Yellow Fiver Virus)

গো-বসস্ত (গরু) : ভ্যাকসিনিয়া ভাইরাস (Vaccinia Virus)

পা ও মুখের ক্ষত (গরু / ভেড়া / মহিষ / ছাগল) : ‘ফুট এ্যান্ড মাউথ’ ভাইরাস (Foot and Mouth virus)

ইঁদুরের টিউমার (ইঁদুর) : পলিওমা ভাইরাস (Polioma virus)

ভাইরাস থেকে যেসব রোগ তৈরি হয় তাদেরকে মনে রাখার সহজ টেকনিক-

হায় (হাম) হায় (হার্পিস) দেশে (ডেঙ্গু) বসন্ত (গুটি বসন্ত, জল বসন্ত) মাস (মাম্পস) এলো (AIDS) ভাইয়াকে (ভেরিওলা) জ্বর (জলাতঙ্ক) সর্দি (ইনফ্লুয়েঞ্জা) তে পেলো (পোলিও)।

কয়েকটি উদ্ভিদ ভাইরাস রোগের নাম পোষকদেহ এবং ভাইরাসের নাম-

তামাকের মোজাইক রোগ (তামাক) – টোবাকো মোজাইক ভাইরাস (Tobacco Mosaic Virus)

সিমের মোজাইক রোগ (সিম) – বীন মোজাইক ভাইরাস (Bean Mosaic Virus)

টম্যাটোর বুশিস্টান্ট রোগ (টম্যাটো) – বুশিস্টান্ট ভাইরাস (Bushystant Virus)

ধানের টুংগ্রো রোগ (ধান) – টুংগ্রো ভাইরাস (Tungro Virus)

কলার বান্‌চি টপ রোগ (কলা) – বান্‌চি টপ ভাইরাস (Banchy Top Virus)

গোল আলুর মোজাইক রোগ (গোল আলু) – পট্যাটো মোজাইক ভাইরাস (Potato Mosaic Virus)

 

ভাইরাসের উপকারিতা

বিজ্ঞানিগণ গবেষণা করে ভাইরাসকে বিভিন্নভাবে মানুষের কিছু উপকারে আনতে সক্ষম হয়েছেন। এগুলো হচ্ছে-

  • বসন্ত, পোলিও, প্লেগ, টাইফয়েড এবং জলাতঙ্ক রোগের প্রতিষেধক টিকা ভাইরাস দিয়েই তৈরি করা হয়।
  • ভাইরাস হতে জনডিস রোগের টিকাও তৈরি করা হয়।
  • ভাইরাসকে বর্তমানে বহুল আলোচিত ‘জেনেটিক প্রকৌশল’-এ বাহক হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
  • ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া নিয়ন্ত্রণে ভাইরাস ব্যবহার করা হচ্ছে।
  • কতিপয় ক্ষতিকারক কীটপতঙ্গ দমনেও ভাইরাসের ভূমিকা উল্লেখ করার মত।
  • ফায ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে ব্যাকটেরিয়াজনিত আমাশয় রোগের হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করে থাকে।
  • টিউলিপ ফুল : লাল টিউলিপ ফুলে ভাইরাস আক্রমণের ফলে লম্বা লম্বা সাদা দাগ পড়ে, এর ফলে ফুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় এবং ফুলের মূল্য বেড়ে যায়।

পড়াশোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত শত ভিডিও ক্লাস বিনামূল্যে করতে জয়েন করুন আমাদের Youtube চ্যানেলে-

www.youtube.com/crushschool

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published.