ইলেকট্রনাকর্ষী বিকারক (Electrophilic Reagent)

Electro কথাটার মানে হলো ইলেকট্রন, Philic কথাটার মানে হলো কাছে টানা, ভালোবাসা। তাই  Electrophilic কথাটার মানে হচ্ছে যে ইলেকট্রনকে কাছে টানে সেরকম কিছু।

ইলেকট্রন হচ্ছে negative (-ve) চার্জ। একে একমাত্র কাছে টানতে পারে positive (+ve) চার্জ। তাই Electrophilic reagent গুলো সবাই +ve চার্জ যুক্ত। তবে কিছু অনুও Electrophilic reagent হিসেবে কাজ করে।

আয়ন হিসেবে থাকা কিছু Electrophilic reagent হচ্ছে-

H3C+, Br+, H+, H3O+, NO2+, NO+

আবার অনু হিসেবেও কিছু Electrophilic reagent থাকে। এগুলো হচ্ছে-

AlCl3, BF3, FeCl3, SO3

AlCl3 এই অনুটার দিকে একটু খেয়াল করি আমরা। এটি একটি আয়নিক যৌগ এবং এর বাইরের shell-এ মোট ৬ টা ইলেকট্রন থাকে।

কোনো যৌগ তৈরি হবার সময় তার মৌল গুলো অষ্টক পূরণ করতে চায়। কিন্তু AlCl3 এর ক্ষেত্রে অষ্টক পূরণ হয়নি। এর শেষ কক্ষপথে ৬ টা ইলেকট্রন আছে, আরো ২ টা ইলেকট্রন লাগবে অষ্টক পূরণ করার জন্য। এ ধরনের অষ্টক অপূর্ণতাকে বলা হয় অষ্টক সংকোচন বা Octate Compression.

যাদের মধ্যে এমন Octate compression থাকে তারা Electrophilic reagent হিসেবে কাজ করতে পারে। কারন তাদের দুটো ইলেকট্রন দরকার হয় অষ্টক পূরনের জন্য, অর্থাৎ ইলেকট্রনের প্রতি এদের টান আছে।

অ্যামোনিয়ার (NH3) দুটো lone pair ইলেকট্রন থাকে। তাই এটি সহজে তার lone pair ইলেকট্রনকে AlCl3 এর কাছে দিয়ে যৌগ তৈরি করতে পারে।

অর্থাৎ যাদের অষ্টক সংকোচন থাকে তারাই ইলেকট্রনাকর্ষি বিকারক হিসেবে কাজ করে। তাই AlCl3 একটা ইলেকট্রনাকর্ষি বিকারক। এছাড়া BF3 এটিরও অষ্টক সংকোচন থাকে বলে এটিও ইলেকট্রনাকর্ষি বিকারক হিসেবে কাজ করে।


ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

অতিথি লেখক হিসেবে আমাদেরকে আপনার লেখা পাঠাতে চাইলে মেইল করুন-

write@thecrushschool.com

Crush School

Emtiaz Khan

A person who believes in simplicity. He encourages the people for smart education. He loves to write, design, teach & research about unknown information.