গুণানুপাত সুত্র (Proportion Formula)

১৮০৩ সালে জন ডাল্টন এ সূত্র প্রকাশ করেন। এটি নিম্নরূপে ব্যক্ত করা যায়-

যদি দুইটি মৌল পরস্পরের সাথে যুক্ত হয়ে একাধিক যৌগ উৎপন্ন করে তবে এসব যৌগের যে কোনো একটি মৌলের একটি নির্দিষ্ট ভরের সাথে অপর মৌলের যে বিভিন্ন ভরসমূহ পৃথকভাবে যুক্ত হয়, সেই ভরগুলো পরস্পরের সাথে একটি সরল অনুপাত বজায় রাখে। যেমন 1 : 2, 2 : 3, 3: 4, 3 : 5 প্রভৃতি।

যেমন, হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন পরস্পরের সাথে যুক্ত হয়ে দুইটি ভিন্ন যৌগ গঠন করে। এ যৌগ দুইটির নাম পানি এবং হাইড্রোজেন পারক্সাইড। প্রথম যৌগে 1g হাইড্রোজেনের সাথে ৪g অক্সিজেন যুক্ত। দ্বিতীয় যৌগে 1g হাইড্রোজেনের সাথে 16g অক্সিজেন যুক্ত। দুইটি যৌগে অক্সিজেনের পরিমাণের অনুপাত = 8 : 16 = 1 : 2, যা একটি সরল অনুপাত।

গাণিতিক উদাহরণ

A ও B দুইটি মৌল পরস্পরের সাথে সংযুক্ত হয়ে চারটি ভিন্ন ভিন্ন যৌগ গঠন করে। তাদের মধ্যে B যথাক্রমে 25%, 14.28%, 10% ও 7.69% আছে। দেখাও যে তাদের সংযোগ গুণানুপাত সূত্রকে সমর্থন করে।

সমাধান : প্রথম যৌগ

B = 25%; A = (100-25) = 75%

25g B সংযুক্ত আছে 75g A এর সাথে

তাই, 1g B সংযুক্ত আছে = 75/25 = 3g A এর সাথে

দ্বিতীয় যৌগে

B = 14.28%; A=(100-14.28)= 85.72%

14.28g B সংযুক্ত আছে 85.72g A এর সাথে

তাই, 1g B সংযুক্ত আছে = 85.72/14.28 = 6g A এর সাথে

তৃতীয় যৌগে

B = 10%; A = (100-10) = 90%

10g B সংযুক্ত আছে 90g A এর সাথে

তাই, 1g B সংযুক্ত আছে = 90/10 = 9g A এর সাথে

চতুর্থ যৌগে

B = 7.69%; A = (100-7.69) = 92.31%

7.69g B সংযুক্ত আছে 92.31g A এর সাথে

তাই, 1g B সংযুক্ত আছে = 92.31/7.69 = 12g A এর সাথে

দেখা যাচ্ছে যে, বিভিন্ন যৌগে 1 গ্রাম B এর সাথে যথাক্রমে 3, 6, 9 ও 12 গ্রাম A সংযুক্ত আছে।

A এর ভর সমূহের অনুপাত = 3 : 6 : 9 : 12 = 1 : 2 : 3 : 4, যা একটি সরল অনুপাত। সুতরাং প্রদত্ত উপাত্ত গুণানুপাত সূত্রকে সমর্থন করে।

পড়াশোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত শত ভিডিও ক্লাস বিনামূল্যে করতে জয়েন করুন আমাদের Youtube চ্যানেলে-

www.youtube.com/crushschool

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published.