তড়িৎ বলের উপরিপাতন নীতি (Superposition Principle of Electric Force)

কুলম্বের সূত্রে দুটি চার্জের মধ্যে কাজ করা বল নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। এখন একটি চার্জ যদি অনেকগুলো চার্জের মাঝে আবদ্ধ থাকে কিংবা ওই চার্জের আশেপাশে অনেক চার্জ থাকে, তবে ঐ চার্জের উপর ক্রিয়াশীল নীট (resultant) বল কাজ করে। এ নীট বল বের করতে হলে প্রত্যেকটি চার্জকে ওই চার্জের সাথে এমনভাবে ধরতে হয় যেন অন্য চার্জগুলো অনুপস্থিত রয়েছে। এরকমভাবে প্রত্যেকটি চার্জের জন্য বল নির্ণয় করে তাদের ভেক্টর যোগফল করলে হবে ওই চার্জের উপর ক্রিয়াশীল নীট বল। বলের এই ধরণের নীতিকে বলের উপরিপাতন নীতি বলে।

ধরা যাক, তিনটি ধনাত্মক চার্জ Q, q1, q2 কাছাকাছি অবস্থান করছে। যেহেতু তারা ধনাত্মক চার্জ, তাই তারা একে অপরকে বিকর্ষণ করবে। আমরা Q চার্জের উপর q1 ও q2 এর জন্য তৈরি বিকর্ষণ বল বের করব।

প্রথমে q1 চার্জের জন্য Q-এর উপর কাজ করা বল F1-এর মান ও দিক নির্ণয় করবো। তারপর q2 চার্জের জন্য Q-এর উপর কাজ করা বল F2-এর মান ও দিক বের করবো। এবার Q-এর উপরে লব্ধি বা নীট বল F হবে F1 ও F2 বল দুটোর ভেক্টর যোগফলের সমান। অর্থাৎ-

F = F1 + F2

খেয়াল করে দেখো, q3 এর উপর q1 এর ক্রিয়াশীল বল বের করার সময় q2 কে অনুপস্থিত ধরা হয়েছে। আবার q3 এর উপর q2 এর ক্রিয়াশীল বল বের করার সময় q1 কে অনুপস্থিত ধরা হয়েছে। এই পদ্ধতি ব্যবহার করে যে কোনো সংখ্যক চার্জের জন্য কোনো একটি চার্জের উপরে ক্রিয়াশীল নীট বল বের করা যায়।

‘তার চেয়ে বড় জালিম আর কে, যে আল্লাহর (ঘর) মসজিদে তাঁর নাম স্মরণ করতে বাঁধা দেয় এবং এর বিনাশসাধনে প্রয়াসী হয়?’ (আল-কুরআন, সূরা : বাকারা)

পড়াশোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত শত ভিডিও ক্লাস বিনামূল্যে করতে জয়েন করুন আমাদের Youtube চ্যানেলে-

www.youtube.com/crushschool

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published.