তড়িতের প্রকারভেদ (Types of Electricity)

তড়িৎ দুই প্রকার এবং একে আমরা দুই শাখায় ভাগ করি, যথা-

  • স্থির তড়িৎ (Static Electricity) ও
  • চল তড়িৎ বা গতি তড়িৎ (Current Electricity)

তড়িৎ বা চার্জ যখন কোনো বস্তুতে আবদ্ধ থাকে, চলাচল করে না, তখন একে স্থির তড়িৎ বলে। আর তড়িৎ বা চার্জ যখন কোনো বস্তুর মধ্য দিয়ে চলাচল করে তখন তাকে চল তড়িৎ বা গতি তড়িৎ বলে।

আমরা একটা পরীক্ষার মাধ্যমে বিষয়টা দেখতে পারি। একটি কাচ দণ্ডকে শুষ্ক রেশমী কাপড় দিয়ে কয়েকবার ঘর্ষণ করে কাচ দণ্ডটিকে ছোট ছোট কাগজের টুকরার উপর ধরলে কাগজের টুকরা কাচ দণ্ড দ্বারা আকৃষ্ট হয়। অবশ্য কাগজের টুকরা কাচ দণ্ড স্পর্শ করার পর ছিটকে পড়ে। তেমনি ইবোনাইট দণ্ড বা চাঁচ গালাকে (Sealing wax) পশম বা বিড়ালের চামড়া দ্বারা ঘর্ষণ করলে তাদের কাছে ছোট ছোট কাগজের টুকরা আকৃষ্ট হয় এবং দণ্ড স্পর্শ করবার পর কাগজের টুকরা ছিটকে পড়ে।

ওদিকে শীতকালে রবার বা বা প্লাস্টিকের চিরুণী দ্বারা চুল আঁচড়ালেও এই ঘটনা দেখা যায়। ঘর্ষণের ফলে কাচ, ইবোনাইট, চাঁচ গালা এবং চিরুণীতে চার্জের বা তড়িতের উপস্থিতি ঘটে এবং উক্ত পদার্থসমূহে চার্জ বা তড়িৎ আবদ্ধ অবস্থায় থাকে, চলাচল করে না। এই তড়িতকে স্থির তড়িৎ (Static electricity) বলা হয়। আবার যেহেতু ঘর্ষণের ফলে এ তড়িৎ উৎপন্ন হয়, এজন্য একে ঘর্ষ তড়িৎ (Frictional electricity)-ও বলা হয়।

পুনরায় কোনো একটি তামার তারের দু’প্রান্তে বৈদ্যুতিক চাপ বা বিভব পার্থক্য করে রাখলে তারের মধ্য দিয়ে চার্জ এক স্থান হতে অন্য স্থানে গমন করে। এ ধরনের তড়িৎকে চল তড়িৎ বলে।

‘এই বিশ্বের বিস্ময় ও সৃষ্টি নিয়ে গভীর চিন্তাভাবনা করো।' (আল-কুরআন, সূরা : আলে ইমরান)

পড়াশোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত শত ভিডিও ক্লাস বিনামূল্যে করতে জয়েন করুন আমাদের Youtube চ্যানেলে-

www.youtube.com/crushschool

ক্রাশ স্কুলের নোট গুলো পেতে চাইলে জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে-

www.facebook.com/groups/mycrushschool

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published.